Friday, 27 Nov, 6.43 pm আজকাল.in

হোম
স্মিথ-ফিঞ্চের জোড়া শতরান, সিডনিতে লজ্জার হার ভারতের

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ‌করোনা আবহে আটমাস পর জাতীয় দলের জার্সিতে মাঠে নামলেন বিরাটরা। আর প্রথম ম্যাচেই ব্যাটিং বিপর্যয়ের মুখে পড়ল ভারতীয় ব্যাটিং লাইন আপ। ৩৭৫ রানের বিশাল লক্ষ্যমাত্রা তাড়া করতে নেমে ৩০৮/‌৮ রানেই থেমে গেল ভারতের ইনিংস। একদিকে স্মিথ-ফিঞ্চের জোড়া শতরান, অন্যদিকে হ্যাজেলউড-জাম্পার দাপুটে বোলিংয়ের সৌজন্যে ৬৬ রানে প্রথম ওয়ানডে জিতল অস্ট্রেলিয়াই। কাজে এল না শিখর ধাওয়ান-হার্দিক পাণ্ডিয়ার দুরন্ত লড়াইও। তিন ম্যাচের সিরিজে ১-০ এগোল অস্ট্রেলিয়া। সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ রবিবার।
দিনের শুরুতেই স্টিভ স্মিথ এবং অ্যারন ফিঞ্চের জোড়া শতরানের সৌজন্য ভারতের সামনে ৩৭৫ রানের লক্ষ্যমাত্রা রাখে অস্ট্রেলিয়া। রান তাড়া করতে নেমে শুরুটাও ভালই করেছিলেন মায়াঙ্ক আগরওয়াল এবং শিখর ধাওয়ান জুটি। কিন্তু ২২ রানের মাথায় মায়াঙ্ককে আউট করেন হ্যাজেলউড। এরপর ২১ রান করে হ্যাজেলউডের বলে আউট হন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলিও। সিডনিতে এবারও বড় রান পেলেন না বিরাট। এরপর দ্রুত ফিরে যান শ্রেয়স আইয়ার এবং লোকেশ রাহুলও। মাত্র দু'‌রান করেই হ্যাজেলউডের শিকার হন শ্রেয়স। এবং পরে ১২ রান করে জাম্পার বলে আউট হন রাহুল। ১০১ রানের ভিতরেই ৪ উইকেট হারিয়ে ধুঁকছিল ভারত। তখন ২০০ রানও ছিল কল্পনা।
এরপরই অবশ্য পাল্টা লড়াই শুরু করেন ধাওয়ান এবং পাণ্ডিয়া। বাঁ-হাতি ধাওয়ান একদিকে ইনিংস সামলাতে থাকেন, অন্যদিকে মারমুখী মেজাজে ধরা দেন হার্দিক। দু'‌জনে মিলে জুটিতে ১২৮ রানও যোগ করেন। এই জুটিতে ভর করেই টিম ইন্ডিয়া যখন ম্যাচে ফেরার চেষ্টা করছে, তখন ফের আঘাত হানেন জাম্পাই। ৭৪ রান করে আউট হয়ে যান ধাওয়ান। এরপর হার্দিককেও ফেরান এই লেগস্পিনার। আউট হওয়ার আগে পাণ্ডিয়া ৭৬ বলে ৯০ রান করলেও দলকে জেতানোর জন্য তা মোটেই যথেষ্ট ছিল না। শেষপর্যন্ত ভারতের ইনিংস থামে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৩০৮/‌৮ রানে। অসি বোলারদের মধ্যে সেরা বোলিংও অবশ্যই অ্যাডাম জাম্পার। ১০ ওভারে ৫৪ রান দিয়ে চারটি উইকেট নেন তিনি। তাঁকে মারতে গিয়ে একের পর এক আউট হলেন ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা। অন্যদিকে হ্যাজেলউড নেন তিনটি এবং স্টার্ক একটি উইকেট।
জঘন্য ফিল্ডিং। ততোধিক জঘন্য বোলিং। সিডনিতে শুরু থেকেই ছন্নছাড়া ছিল টিম ইন্ডিয়া। ফিঞ্চ ও স্মিথের জোড়া শতরানের দৌলতে সিডনিতে রানের পাহাড়ে চড়ে বসেছিল অস্ট্রেলিয়া। তুলেছিল ৩৭৪/‌৬।
টস জিতে সিডনির ব্যাটিং সহায়ক শুরুতেই ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন অসি অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। ওপেনিংয়ে ফিঞ্চের সঙ্গে আসেন ডেভিড ওয়ার্নার। ওপেনিং জুটিতে দুই ব্যাটসম্যান যোগ করেন ১৫৬ রান। ওয়ার্নার আউট হন ৬৯ রান করে। আর ফিঞ্চ করেন ১২৪ বলে ১১৪। ইনিংসে ছিল ৯ টি চার ও ২ টি ছয়। তিন নম্বরে ব্যাট করতে নামা স্টিভ স্মিথ ছিলেন আরও বিধ্বংসী। তিনি মাত্র ৬৬ বলে ১০৫ রান করে যান। তৃতীয় অসি ব্যাটসম্যান হিসেবে ওয়ানডেতে দ্রুততম শতরানের নজির গড়লেন তিনি। মাঝখানে ম্যাক্সওয়েল ১৯ বলে ৪৫ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলেন। মারেন ৫ টি চার ও ৩ টি ছয়।
ভারতীয় বোলারদের মধ্যে কিছুটা সমীহ আদায় করেছেন সামি। তিনি ১০ ওভারে ৫৯ রান দিয়ে ৩ উইকেট পেলেন। তাঁর শিকার ওয়ার্নার, স্টিভ স্মিথ ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। এছাড়া জাদেজা দিলেন ১০ ওভারে ৬৩। বাকিদের কথা আর না বলাই ভাল। বুমরা ১০ ওভারে দিলেন ৭৩। সাইনি ১০ ওভারে দিয়েছেন ৮৩। আর চাহাল?‌ ৮৯ রান দিলেন ১০ ওভারে। রীতিমতো ছেলেখেলা করা হল ভারতীয় বোলারদের নিয়ে। সঙ্গে যোগ হল জঘন্য ফিল্ডিং। একাধিক ক্যাচ ফেললেন ভারতীয় ফিল্ডাররা। যার মাশুল গুণতে হল।
করোনা কালে প্রথমবার দর্শকদের উপস্থিতিতে মাঠে নেমেছে ভারত-অস্ট্রেলিয়া। সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডের ৫০ শতাংশ দর্শকাসন ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল স্টেডিয়াম কর্তৃপক্ষ। আর মাঠে আসার সুযোগ পেতেই ভিড় জমান ক্রিকেটপ্রেমীরা।

Dailyhunt
Disclaimer: This story is auto-aggregated by a computer program and has not been created or edited by Dailyhunt. Publisher: Aajkaal
Top