Friday, 03 Nov, 5.02 am Bangla Live

জেনারেল নিউস
অর্ধ শতকেরও বেশি সময় ধরে আমাদের আটপৌরে জীবনকে পদ্যময় করে রেখেছে অনুকূল ঠাকুরের এই পরম ভক্তের গদ্য

চোর এবং ভূত দুজনেই মানুষের পরম বন্ধু |
চুরি করতে এসে চোর গৃহকর্তার সঙ্গে দুটো সুখ দুঃখের গল্প করে যায় |
বাড়িতে সিঁধ কেটে চোর বেশি কিছু না পেলে লজ্জিত হন গৃহকর্তা | পরিশ্রম পোষাবে কী করে ?
বিষধর সাপ পোষ্য হয়ে কুণ্ডলী পাকিয়ে শুয়ে থাকে গৃহস্থের দরজায় |
ডাকাত পড়লে পুরনো মনিবকে এসে বাঁচায় পোষা বাঘের ভূত.

জানতেই পারতাম না তিনি না লিখলে | তিনি শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায় | সদ্য পূর্ণ করলেন ৮২ বছর বয়স |

# জন্ম ১৯৩৫-এর ২ নভেম্বর | ওপার বাংলার ময়মনসিংহ জেলায় | দশ বছর বয়স পর্যন্ত ছিলেন সেখানেই | দেশভাগের পরে পাততাড়ি গুটিয়ে এপার বাংলায় | বাবা ছিলেন রেলওয়েজে | ঘুরে ঘুরে কাটে শৈশব | তার অনেকটা জুড়ে ছিল উত্তরবঙ্গ এবং অসম |

# কোচবিহারের ভিক্টোরিয়া কলেজ থেকে ইন্টারমিডিয়েটের পরে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলায় স্নাতকোত্তর |

# স্কুলে চাকরি করেছিলেন কিছুদিন | অবশেষে সাহিত্যের টানে সেখানেই নোঙর ফেলা বরাবরের জন্য | এখন কর্মরত আনন্দবাজার প্রকাশনার দেশ পত্রিকায় |

# ১৯৫৯ সালে দেশ পত্রিকায় প্রথম প্রকাশিত হয়েছিল তাঁর ছোটগল্প, ' জলতরঙ্গ ' | তার কয়েকবছর পরে দেশ পত্রিকারই পুজোবার্ষিকীতে এল তাঁর উপন্যাস ঘুণপোকা | ছোটদের জন্য তাঁর কলমের প্রথম উপহার মনোজদের অদ্ভুত বাড়ি | লিখেছিলেন ১৯৭৮ সালে |

# একদিকে শিশু ও কিশোর | অন্যদিকে প্রাপ্তবয়স্ক | তাঁর কলম থেকে ঝরে পড়েছে একের পর এক মণিমুক্তো | পাগলাসাহেবের কবর, বনি, গৌরের কবচ, বক্সার রতন, পলাশগড়ের জঙ্গলে, পাতালঘর, নবীগঞ্জের দৈত্য, গোসাঁইবাগানের ভূত, হীরের আংটি, নৃসিংহ রহস্য, হেতম পুরের গুপ্তধন, ঝিলের ধারে বাড়ি, সোনার মেডেল, ছায়াময়.তাঁর মায়াময় কলমের স্পর্শে শৈশব হয়ে ওঠে নিবিড় কল্পলোক |

# একটি প্লটকে কেন্দ্র করে বহু চরিত্র | সাবপ্লট গৌণ | সবাই আবর্তিত হয় মূল প্লট ঘিরে | একবার পড়তে শুরু করলে মনে হয় চরিত্রগুলো যেন চারপাশে ঘুরছে | কথা বলছে | বইয়ের পাতা থেকে মুখ তুললেই দেখা যাবে সবাইকে | পড়া শুরু করলে লেখকের মুন্সিয়ানায় পাঠক এক লহমায় চলে যান সেই কল্পরাজ্যে | আর অবশ্যই অশরীরী এবং তস্কর | এদের দুজনকে ছাড়া শীর্ষেন্দুর কিশোর উপন্যাস ভাবাই যায় না | এবং আপাত ব্রাত্য এ দুটি চরিত্র তাঁর গল্পে মানুষের পরম বন্ধু |

# ছোটদের গল্পে যেটা কল্পলোক সেটাই বড়দের জন্য আস্তিকতা | সেটা সরাসরি না বলে সূক্ষ্মভাবে দেখানো পরম নির্ভরতার স্থল হিসেবে | যতই জটিলতা থাকুক না কেন, কোথাও না কোথাও যেন একটা আশ্রয়স্থল আছে সবার জন্য |

# ঘুণপোকা, পার্থিব, মানবজমিন, পারাপার, ফেরিঘাট, অসুখের পরে, উজান, কাগজের বৌ, কাপুরুষ, চুরি, জাল, চোখ, দূরবীন, ম্যাডাম ও মহাশয়, খেলনাপাতি.বাংলা সাহিত্য শীর্ষেন্দুময় |

# তাঁর সৃষ্টির মধ্যে উল্লেখ না করলেই নয় নীলু হাজরার হত্যারহস্য, ফজল আলি এসেছে, পিদিমের আলো, বিকেলের মৃত্যু, যাও পাখি, সাদা বেড়াল কালো বেড়াল, লাল নীল মানুষ আর শ্যাওলার নাম |

# তাঁর থ্রিলারের গোয়েন্দা শবর দাশগুপ্ত লালবাজারের পুলিশ | রসবোধ চূড়ান্ত | অমায়িক চেহারা | গল্প করতে করতে বের করে নেন আসল খবর | রুপোলি পর্দাতেও খুব জনপ্রিয় গোয়েন্দা শবর সিরিজ |

# কিশোর উপন্যাস থেকে একাধিক ছবি হয়েছে | ঋতুপর্ণ ঘোষের পরিচালনায় হীরের আংটি, অভিজিত্‍ চৌধুরীর পরিচালনায় পাতালঘর, নবীগঞ্জের দৈত্য অবলম্বনে তপন সিনহার আজব গাঁয়ের আজব কথা, হরনাথ চক্রবর্তীর পরিচালনায় ছায়াময় | মনোজদের অদ্ভুত বাড়ি নিয়ে ছবি করতে চলেছেন পরিচালক অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায় |

# বড়দের জন্য যা লিখেছেন তার মধ্যে শবরের থ্রিলারের পাশাপাশি সেলুলয়েড বন্দি হয়েছে তাঁর লেখা কাগজের বৌ, আশ্চর্য প্রদীপ, বাঁশিওয়ালা এবং দোসর |

# ব্যক্তিগত জীবনে শ্রী শ্রী অনুকূল ঠাকুরের ভক্ত, ঘোর সাত্তিক এবং সম্পূর্ণ নিরামিশাষী | তাঁর বেশিরভাগ বইই উত্‍সর্গ করা থাকে রাঃ স্বাঃ-কে | অর্থাত্‍ রাধা স্বামী | অনুকূল ঠাকুরের ভক্তরা পরস্পর এই সম্বোধন করে থাকেন |

# অফিসে থাকলেও নির্দিষ্ট সময়ে তাঁর আহ্নিক করা চাই-ই-চাই | নিপাট, নির্বিরোধী ভদ্রলোক, ঘোরতর সংসারী, রসবোধের শীর্ষে থাকা এই সাহিত্যিক এক সাক্ষাত্‍কারে বলেছিলেন, সংসারটা তাঁর স্ত্রীর | তিনি আশ্রিতমাত্র |

# সাহিত্যকর্মের স্বীকৃতিস্বরূপ পেয়েছেন বিদ্যাসাগর পুরস্কার, আনন্দ পুরস্কার, সাহিত্য আকাডেমি এবং বঙ্গ বিভূষণ |

আরও লিখুন তিনি | তাঁর নিবিড়, মায়াময় গদ্যে আরও পদ্যময় হয়ে উঠুক আমাদের আটপৌরে জীবন |

Dailyhunt
Disclaimer: This story is auto-aggregated by a computer program and has not been created or edited by Dailyhunt. Publisher: Banglalive
Top