Saturday, 12 May, 9.01 am আমাদের ভারত ডট কম

ধর্ম ও জীবন
অতীত, ঐতিহ্য আর ভবিষ্যতের নগরী নবদ্বীপ

সম্রাট গুপ্ত, ১২ মে: ভাবতে পারেন গঙ্গার ধারে বসে ইতিহাসের গল্প শুনছেন! মৃদুমন্দ সমীরণ! কখনও মানস চক্ষে ছুটে আসছে লক্ষ্মণ সেন, বল্লাল সেনের সেনারা! কখনও বা বখতিয়ার খিলজির ঘোড়া! আবার কখনও স্বয়ং শ্রীগৌরাঙ্গ মহাপ্রভুর পাশে বসে শুনছেন তাঁর শান্তির বানী!

গঙ্গাবক্ষ থেকে বিস্তৃত নতুন দ্বীপ। তাই নবদ্বীপ। আবার জনশ্রুতি - নয়টি দ্বীপের সমন্বয়ে গড়ে উঠেছে বলে নবদ্বীপ। লোকবসতি গড়ে ওঠে পাল রাজাদের রাজত্বকালে। ব্রাহ্মণ্য সংস্কৃতি ও সংস্কৃতচর্চার ব্যাপক প্রসার ঘটে সেন রাজাদের আমলে। একদা 'অক্সফোর্ড অব বেঙ্গল' নামে পরিচিত নবদ্বীপেই নব্য ন্যায়, নব্য স্মৃতি এবং নব্য তন্ত্রের উদ্ভব ঘটে। পঞ্চদশ শতকে চৈতন্যদেব এখানে জন্মগ্রহণ করেন। বিশ্বের বৈষ্ণবদের কাছে গুপ্ত বৃন্দাবন বলে পরিচিত নবদ্বীপ।

বাংলায় সেন রাজাদের আমলে (১১৫৯ - ১২০৬) নবদ্বীপ ছিল রাজধানী। ১২০২ সালে রাজা লক্ষ্মণ সেনের সময় বখতিয়ার খিলজি নবদ্বীপ জয় করে বাংলায় মুসলিম সাম্রাজ্যের সূচনা করে।

মৃত্যঞ্জয় মন্ডলের'নবদ্বীপের ইতিবৃত্ত' বইয়ে লেখা, "মিনহাজউদ্দিন সিরাজির গ্রন্থে নবদ্বীপকে নওদিয়ার বলা হইয়াছে। নওদিয়ার শব্দে নূতন দেশ।" (পৃষ্ঠা ৫৯)। তা থেকেই নাকি নদীয়া! আর, নবদ্বীপ নাম হয় নয়টি দ্বীপ - রুদ্রদ্বীপ, বদ্রুদ্বীপ, সীমন্তদ্বীপ, অন্তর্দ্বীপ, মধ্যদ্বীপ, গোদ্রুদ্বীপ, জাহ্নুদ্বীপ, ঋতুদ্বীপ ও মাদাদ্রুদ্বীপ-এর সমাবেশে। অন্যমতও আছে!

নবদ্বীপ হয়ে গেছে কৃষ্ণ ও কালী ভক্তদের মিলনস্থল অর্থাত্‍ বৈষ্ণব ও শাক্ত দুই-এরই পীঠস্থান। নববর্ষ, নবদ্বীপেরশাক্তরাস, ঝুলন, চন্দনযাত্রা, গাজনউত্‍সব, রথযাত্রা, পূর্ণিমা, গঙ্গা পূজা, দুর্গা পূজা, রাস যাত্রা, দোল পূর্ণিমা, সরস্বতী পূজা, গুরু পূর্ণিমা,ধুলোট,গৌরপূর্ণিমা প্রভৃতি। এদের মধ্যে রাস এবং দোলযাত্রা মহাসমারহে পালিত হয়।

নদিয়া হল বৈষ্ণব ধর্মের প্রর্বতক শ্রীগৌরাঙ্গ মহাপ্রভুর জন্মস্থান। এই ইন্টারনেটের যুগেও এখানে সংস্কৃত ভাষা নিয়ম করে শেখানো হয়। 'বার্বি' আর 'সফ্‌ট টয়'-এর মাঝেও এখানকার 'মাটির পুতুল' ধরে রেখেছে পূর্বকালের স্মৃতি।নবদ্বীপ শহর ভাগীরথীর পশ্চিমতীরে, ভাগীরথী ও জলঙ্গির সঙ্গমস্থলে অবস্থিত।

নবদ্বীপের শিবলিঙ্গগুলো বেশিরভাগই বৌদ্ধ প্রভাবিত। পাল যুগে নবদ্বীপ ছিল বৌদ্ধ ধর্মের পীঠস্থান। নবদ্বীপের পূর্বে অবস্থিত বল্লালসেনের ঢিবি খননের পর প্রাপ্ত স্থাপত্য শৈলীকে অনেকে বৌদ্ধ মন্দির বলে মনে করেছেন। পানশিলা সুবর্ণবিহার নবদ্বীপের সন্নিকটে অবস্থিত। নবদ্বীপের বুড়োশিব, যোগনাথ, বানেশ্বর, হংসবাহন, পারডাঙার শিব প্রভৃতি এই শ্রেণির বৌদ্ধ প্রভাবিত শিবলিঙ্গ। এঁদের কোন গৌরীপট্ট নেই।

গাজনের পাঁচ দিন নবদ্বীপের আপামর জনগণ মেতে ওঠেন উত্‍সবে। সাতগাজন, ফুল, ফল, নীল ও চরক- এই নিয়ে গাজন।

এ হেন নদিয়ার সোদা গন্ধে গা ভাসাতে কে না চাইবে? দু'-তিন দিনে ঘুরে দেখার জায়গা আছে অনেকই। আর যদি গঙ্গার ধারে সুন্দর, সাজানো একটা উপনগরীতে নিজের একটা স্থায়ী কুটির করে নিতে পারেন, আছে তারও সুলুক সন্ধান।

Dailyhunt
Disclaimer: This story is auto-aggregated by a computer program and has not been created or edited by Dailyhunt. Publisher: Bengali Amader Bharat
Top