Monday, 20 Jan, 8.59 am মঙ্গলকোট.কম

হোম
বর্ধমানে সরকারি হাসপাতালে শিশু চুরি, প্রশ্নচিহ্ন হাসপাতালের অন্দরে

সানি প্রসাদ

সরকারি হাসপাতালে শিশু চুরি, তাও বোকা বানিয়ে। বর্ধমানের অনাময় হাসপাতালে মায়ের কোল থেকে শিশুকে নিয়ে পালিয়ে গেল এক মহিলা। বাবা মা-কে কার্যত বোকা বানিয়ে এক মহিলা সদ্যজাত শিশুকে নিয়ে চম্পট দিল ।

গত বৃহঃস্পতিবার বর্ধমান হাসপাতালে ভর্তি হন পূর্ববর্ধমানের রায়নার সিপটা উত্তরপাড়া এলাকার রীমা মালিক। গত শুক্রবার তিনি বিকালে একটি তিন কেজি ওজনের কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। রবিবার সকালে তাঁর ছুটি হয়। বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের প্রসূতি বিভাগ থেকে বেড়িয়ে রীমাদেবী রাধারানী ওয়ার্ডের সামনের বিশ্রামাগারে বসে ছিলেন। তাঁর স্বামী সন্দীপ মালিক ওষুধ কিনতে যান।ওষুধ কেনার পর তাঁদের জন্য হাসপাতাল থেকে বাড়ি যাওয়ার বিনামূল্য গাড়িও তৈরি ছিল। এইসময় এক মাঝবয়সী মহিলা তাঁদের কাছে গিয়ে কথা বলা শুরু করে। ওই মহিলা তাঁদের রিয়া বন্দ্যোপাধ্যায় নাম বলে পরিচয় দেয়। নিজেকে আশাদিদি বলেও জানায়। এরপর ওই মহিলা তাঁদের শিশুর জন্মের পর সরকারী ছয় হাজার টাকা নিয়েছেন কিনা জিজ্ঞাসা করেন।

ওই দম্পতি জানায় তাঁরা ওই টাকা নেয়নি। এরপর ওই মহিলা তাঁদের অনাময় হাসপাতালে যাওয়ার পরামর্শ দেয়। তিনি নিজেও তাঁদের সঙ্গে গিয়ে সাহায্য করার কথা বলেন। ওই মহিলা এই কাজের দায়িত্ব আছেন বলেও আশ্বাস দেয়।

এরপর ওই দম্পতি, সদ্যজাত শিশুর দিদিমা সরকারী গাড়ি না নিয়ে একশো টাকায় টোটো ভাড়া করে অনাময় হাসপাতালে যান। ওই মহিলায় তাঁদের সঙ্গে আসেন। সকাল ১১.১০ মিনিট নাগাদ তাঁরা অনাময় হাসপাতালে যান। অনাময় হাসপাতালের ভিতর একটি জায়গায় তাঁদের বসানো হয়।

এরপর ওই মহিলা প্রসূতি রীমাদেবীকে বাথরুম করাতে নিয়ে যান। ফিরে এসে শিশুটির বাবা সন্দীপ মালিককে হাসপাতালের দ্বিতীয় তলায় নিয়ে নিয়ে একটি ঘরের সামনে দাঁড় করিয়ে দেয়। সেখানে তাঁর স্ত্রী নাম ডেকে তাঁকে টাকা দেওয়া হবে বলে জানানো হয়। এরপর তিনি ফিরে এসে শিশুটির মায়ের কাছ থেকে শিশুটিকে নিয়ে ওজন করাতে যাবে বলে।

শিশুটি নিয়ে তিনি ফের উপরে যান। অপেক্ষারত শিশুটির বাবাকে কিছু কাগজ পত্র রেডি করতে বলে ফের তিনি নীচে আসে। বাচ্ছাটিকে মায়ের দুধ খাওয়ায়। তারপর বাচ্ছাটিকে নিয়ে ওজন করাতে যাওয়ার নাম করে ওই মহিলা বাড়িয়ে বেড়িয়ে চলে যায়।

অনেকক্ষণ পর ওই মহিলা না ফেরার শিশুটির মা তাঁর স্বামীকে ফোন করেন। স্বামী তাঁকে বলেন, তাকেও উপরে দাঁড় করিয়ে ওই মহিলা আর ফেরেনি। তারপর তাঁরা খোঁজাখুঁজি করেন। কিন্তু ওই মহিলার দেখা মেলেনি। অনাময় হাসপাতালের সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যাচ্ছে ১২.১৫ মিনিট নাগাদ ওই মহিলা শিশুটিকে নিয়ে হেঁটে বেড়িয়ে যায়। অনাময় হাসপাতাল থেকে বেড়িয়ে বর্ধমানের উল্লাসের দিকে চলে যায়।এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ায় বর্ধমান অনাময় হাসপাতালে। পুলিশ সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করে বিষয়টি তদন্ত শুরু করেছে।তবে এই ঘটনায় হাসপাতালের নিরাপত্তা নিয়ে বড়সড় প্রশ্ন উঠে গেল।
Dailyhunt
Disclaimer: This story is auto-aggregated by a computer program and has not been created or edited by Dailyhunt. Publisher: Mongalkote.com
Top