Thursday, 25 Feb, 2.01 pm প্রথম কলকাতা

হোম
কয়লা পাচার রুখবোই, আবারও সরব জেপি নাড্ডা

।। শর্মিলা মিত্র ।।

সূচনা হল বিজেপির 'লক্ষ্য সোনার বাংলা' কর্মসূচির। আজ (২৫ ফেব্রুয়ারি) হেস্টিংসের বিজেপির দলীয় নির্বাচনী কার্যালয় থেকে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জগত্‍ প্রকাশ নাড্ডার হাত ধরে সূচনা হয় বিজেপির এই নয়া কর্মসূচির। এবং সেখান থেকেই বিজেপি ২০২১-এ ক্ষমতায় এলে সিন্ডিকেট এবং দুর্নীতিমুক্ত বাংলা গড়া হবে বলেও জানান তিনি।

জেপি নাড্ডা বলেন, 'দুর্নীতি মুক্ত বাংলা বানাতে চাই। কোনও কাটমানি পরিবেশ থাকবে না বাংলায়। সিন্ডিকেট সংস্কৃতিকে রুখব, কয়লা চুরি রুখব। কয়লা পাচার বন্ধ করা হবে।' 'ভ্রষ্টাচার, বেআইনি কয়লা খাদান, সিন্ডিকেট রাজ রুখব', বলেও দৃঢ়তার সঙ্গে জানান জেপি নাড্ডা। আর 'কয়লা পাচার রুখবোই', নাড্ডার এই কথার মধ্য দিয়ে কোথাও যেন নাম না করে আবারও উঠে আসে সেই ভাইপো অর্থাত্‍ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রসঙ্গ। ইতিমধ্যেই কয়লা পাচারকাণ্ডে উঠে এসেছে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম।

সিবিআই-এর জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখিও হয়েছেন তিনি। ইতিমধ্যেই জানা গিয়েছে রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামে ব্যাঙ্ককের ব্যাঙ্কের দুটি অ্যাকাউন্টের যাবতীয় তথ্য জানতে চেয়ে এফআইইউ-কে চিঠি পাঠিয়েছে সিবিআই। আর এবার আজও বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার গলায় উঠে এল কয়লা পাচার প্রসঙ্গ।

এর পাশাপাশি আজ হেস্টিংসের বিজেপির দলীয় নির্বাচনী কার্যালয় থেকে জেপি নাড্ডা বলেন, 'গ্লোবাল মার্কেটে লোকাল জিনিস নিয়ে যাব। বাংলাকে বিশ্ব দরবারে নিয়ে যাওয়া হবে। বাংলা ফের ভারতকে পথ দেখাবে।'

তিনি আরও বলেন, ২০২১-এ ভারতীয় জনতা পার্টির সরকার গঠন হলে, 'প্রধানমন্ত্রী কিষান নিধি প্রকল্পের অন্তর্গত ১৪ হাজার টাকা একসঙ্গে দেওয়া হবে, এককালীন হিসেবে সেই টাকা দেওয়া হবে কৃষকদের, রাজ্যের ৭৩ লাখ কৃষক উপকৃত হবেন এর ফলে' বলেও মন্তব্য করেন তিনি। পাশাপাশি, '৪ কোটি ৬৭ লাখ মানুষকে আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের অন্তর্ভূক্ত করা হবে' বলেও জানান তিনি। এছাড়াও তিনি বলেন, 'সপ্তম বেতন কমিশন লাগু করা হবে। কোনো কাটমানি পরিবেশ থাকবেনা বাংলায়। রেফিউজি ওয়েলফেয়ার করা হবে।

মতুয়া নম:শূদ্রদের জন্য স্কলারশিপ হবে। নকশালরাজ বন্ধ হবে।' এর পাশাপাশি 'মতুয়াদের স্বাস্থ্য ও শিক্ষার ক্ষেত্রেও বিশেষ জোর দেওয়া হবে' বলেও জানান জেপি নাড্ডা। তিনি আরও বলেন, 'স্বাধীনতাপূর্ব ভারতের গৌরব ফেরাবই। বাংলার মণীষীদের দেখানো পথে হেঁটেই আমরা রাজ্যকে তাদের পুরোনো গৌরব ফিরিয়ে দিতে চাই। বাংলার গৌরব নষ্ট করার চেষ্টা হয়েছে। সেই হতগৌরব পুনরুদ্ধার করাই আমাদের লক্ষ্য।' বলেও জানান জেপি নাড্ডা।

এছাড়াও তিনি অভিযোগ করেন, 'আমি স্বাস্থ্যমন্ত্রী ছিলাম, ডেঙ্গুর রিপোর্ট দিত না রাজ্য। বাংলার মানুষদের সঙ্গে অন্যায় করা হচ্ছে। ডেঙ্গির পরিসংখ্যান পর্যন্ত প্রকাশ করা হয় না, লুকোনো হয়। করোনা মোকাবিলার ক্ষেত্রেও কেন্দ্রের সঙ্গে অসহযোগিতা করা হয়েছে।' তিনি আরও অভিযোগ করেন, 'কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যদফতরকে অন্ধকারে রেখেছে রাজ্য।বাংলায় ডেঙ্গি হল, চিকিত্‍সকদের হুমকি দিয়ে রিপোর্ট আটকেছেন দিদি। করোনার সময় কেন্দ্রীয় দলকে আটকে রাখা হয়েছে। রিপোর্ট দেওয়া হয়নি।' একইসঙ্গে জেপি নাড্ডার আরও অভিযোগ, 'আম্ফানে ২৭০৮ কোটি দিয়েছে কেন্দ্র।

আম্ফান দুর্নীতি নিয়ে অডিট করতে বলেছিল কোর্ট। রাজ্য তার বিরোধিতা করেছে। মমতা সুপ্রিম কোর্টে বলেন, অডিট হবে না। এত ভয় কেন ? কেন্দ্রের ত্রাণ তৃণমূল নেতাদের ঘরে গিয়েছে।' তিনি আরও বলেন, ' চা শ্রমিকদের কথা ভাবছে কেন্দ্র। চা বাগানে বাংলার জায়গা রয়েছে। চা বাগানের শিশুদের উন্নতি দেখতে হবে।'

জেপি নাড্ডা বলেন, 'দেশের ৪০ কোটির মধ্যে ১ কোটি ৯২ লাখ মানুষ বাংলায় জনধন যোজনায় নাম লিখিয়েছেন । দেশের ৮ কোটির ৭৮ লাখ বাংলার মানুষকে গ্যাস দেওয়া হয়েছে। বাংলায় ১ কোটি ৪০ লক্ষ বাড়িতে শৌচাগার ছিল না। আমরা করেছি। রাস্তায় উন্নতি হচ্ছে। বাংলায় ৭ লাখ ৩২ হাজার বাড়িতে বিদ্যুত্‍ ছিল না। আমরা সামাজিক উন্নয়নের জন্য ফ্রি বিদ্যুত্‍ দিচ্ছি।' এর পাশাপাশি পানীয় জল নিয়েও সরব হন জেপি নাড্ডা।

বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জগত্‍ প্রকাশ নাড্ডা আরও বলেন, 'প্রধানমন্ত্রী বদ্ধ পরিকর, পশ্চিম এগোলে পূর্বও এগোবে। বাংলার শক্তিপীঠ, পর্যটন কেন্দ্র উন্নত করা হবে। কালী পুজো, দুর্গাপুজোয় বাংলা বঞ্চিত থাকবে না।' বলেও মন্তব্য করেন জেপি নাড্ডা। তিনি জানান তাঁদের লক্ষ্য একটাই, সোনার বাংলা।

পিসিসি

Tags: Abhishek Banerjee CBI JP Nadda Rujira Banerjee

Continue Reading

Previous আসন ছাড়বে না অধীর, কংগ্রেস জোট ছাড়তে পারেন আব্বাস! Next মনীষীদের নিয়ে রাজনীতি নয়, তাঁদের আদর্শে সোনার বাংলা গড়তে চান নাড্ডা

Dailyhunt
Disclaimer: This story is auto-aggregated by a computer program and has not been created or edited by Dailyhunt. Publisher: Prothom Kolkata
Top