Monday, 17 Feb, 11.21 am THE WALL

নিউজ
বর্ধমানে স্কুলের কাছে ভাঙা কালভার্টের জন্য নিত্য দুর্ঘটনা, অভিযোগ পেয়েও উদাসীন প্রশাসন

দ্য ওয়াল ব্যুরো : বর্ধমান শহরের ভাতছালা থেকে বংপুর যাওয়ার রাস্তার একটি কালভার্ট ভেঙে দু'টুকরো হয়ে গেছে। সেই ভাঙা কার্লভার্টের একটি বড় চাঁই আবার রাস্তার উপর উঠে থাকায় একেবারে মরণফাঁদ তৈরি হয়েছে তবে হুঁশ নেই প্রশাসনের। স্থানীয়দের অভিযোগ, বার বার এব্যাপারে বর্ধমান পুরসভায় জানালেও প্রশাসন ও পুর কর্তৃপক্ষের এব্যাপারে কোনও হেলদোল নেই। ভাতছালা থেকে বংপুর যাওয়ার এই রাস্তাটি বেশ গুরুত্বপূর্ণ। এই রাস্তাতেই রয়েছে শিশু নিকেতন স্কুল। এছাড়াও এই রাস্তা দিয়েই খাজা আনোয়ার বের হাইস্কুলে যাওয়া যায়। আছে বেশ কয়েকটি চালের কল। আলমগঞ্জ পুরবাজার ও সর্বমঙ্গলা মন্দিরে যাওয়ার জন্য অনেকেই এই রাস্তা ব্যবহার করেন। গুরুত্বপূর্ণ এই রাস্তাতেই ফাঁদ পেতে রয়েছে বিপদ।

ভাতছালা শিশুনিকেতন স্কুল পেরিয়ে বংপুর মোড়ের ঠিক আগেই যে চারমাথা রয়েছে, সেখানে রাস্তার উপর একটি কালভার্ট ভেঙে যায় কয়েক দিন আগে। কালভার্ট ভেঙে একটি ভাঙা অংশ রাস্তার উপরে উঁচু হয়ে পড়ে রয়েছে। রাস্তাটি মোটের উপরে ঠিকঠাক। তাই বাঁক বাঁকার পরে আচমকাই সামনে এই ভাঙা কালভার্ট দেখে সমস্যায় পড়ছেন চালকরা। সাইকেল-মোটরসাইকেল আরোহীরা ছোট খাট দুর্ঘটনায় পড়ছেন। স্থানীয় ব্যবসায়ী অশোক রাশ বলেন, 'ভাঙা এই অংশটি দিনের বেলায় চোখে পড়ছে বটে তবে রাতে সমস্যা হচ্ছে কারণ এই রাস্তায় আলো নেই। বাইক বা সাইকেল আরোহীদের সবচেয়ে বেশি বিপদ ঘটছে। তাঁরা গর্তে হুমড়ি খেয়ে পড়ছেন। এখনও পর্যন্ত বড় বিপদ না হলেও যে কোনও দিনই বড় বিপদ হতে পারে।' স্থানীয় বাসিন্দা রূপা ঘোষ বলেন, 'এই রাস্তা দিয়ে এই এলাকার বহু মানুষ বিভিন্ন কাজে যাতায়াত করেন। তাঁরাও সমস্যায় পড়ছেন। অনেক সময় এই গর্তে টোটোর চাকা ঢুকে যাচ্ছে, তাতে কয়েকটি টোটো ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। অন্য যানবাহনেরও ক্ষতি হচ্ছে, ভেঙে যাচ্ছে।' একই কথা বলছে এই পথ দিয়ে প্রতিদিন বিবেকানন্দ মহাবিদ্যালয় যাতায়াত করা ছাত্র সনাতন দাস ও সেখ ইদ্রিস। এব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে বর্ধমান পুরসভার কার্যনির্বাহী আধিকারিক অমিত গুহ বলেন, 'খুব তাড়াতাড়ি কালভার্ট মেরামত করা হবে।'

Dailyhunt
Disclaimer: This story is auto-aggregated by a computer program and has not been created or edited by Dailyhunt. Publisher: The Wall
Top