Thursday, 16 Sep, 11.46 pm TV9 Bangla

বিশ্ব
একটু 'সময়' দিলেই নাকি শান্তি ফেরাবে তালিবান! মহিলাদের অধিকার নিয়েও মুখ খুললেন ইমরান

ইসলামাবাদ: আফগানিস্তানে তালিবান নতুন করে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই তাদেরকে সমর্থনের স্বর শোনা গিয়েছে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের (Imran Khan) গলায়। আইএসআই প্রধানের কাবুল সফর নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে আন্তর্জাতিক মহলে। এ বার ফের একবার তালিবানকে (Taliban) সমর্থনের কথা বললেন ইমরান খান। বিভিন্ন ইস্যুতে তালিবানকে উত্‍সাহিত করা উচিত্‍ বলে মন্তব্য করলেন তিনি। তাঁর দাবি, গোটা বিশ্বের উচিত্‍ তালিবানকে একটু সময় দেওয়া। তালিবান ক্ষমতায় ফেরার পর প্রথমবার সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে এমন দাবি করেন ইমরান খান।

ইমরান খানের দাবি আফগানিস্তানে শান্তি ফেরাতে পারে তালিবানই। তিনি বলেন, ‘তালিবান যদি সঠিক পথে সরকার গঠন করে, তাহলে ৪০ বছর পর আফগানিস্তানে শান্তি ফিরবে। কিন্তু যদি একটু ভুল হয়ে যায় তাহলেই অনেক বড় সমস্যা তৈরি হবে।’ একদিকে যখন আন্তর্জাতিক মহলে আফগান মহিলাদের স্বাধীনতা রক্ষা নিয়ে সওয়াল উঠছে, তখন ইমরান খান সেই প্রসঙ্গে বললেন, ‘এটা ভাবা ভুল যে বাইরে থেকে কেউ আফগা মহিলাদের অধিকার দেবে। আফগানিস্তানের মহিলারা অতটাও দুর্বল নয়। ওদের সময় দিন। ওরা ঠিক ওদের অধিকার ফিরে পাবে।’

আসরাফ ঘানি নেতৃত্বাধীন সরকারকে কটাক্ষ করে ইমরান খান বলেন, ‘কোনও পুতুল সরকারকে আফগানিস্তান সমর্থন করবে না। তাই আমাদের উচিত্‍ তালিবানকে উত্‍সাহিত করা। কারণ আফগানিস্তানের বর্তমান সরকার জানে যে অন্যান্য দেশের সাহায্য ও অনুদান ছাড়া তারা এগোতে পারবে না। এই অস্থিরতা কাটাতে পারবে না। আমাদের উচিত্‍ তাদের সঠিক পথের দিশা দেখানো। ইমরান খান আরও উল্লেখ করেন যে তিনি বারবার আমেরিকাকে আফগান নীতি নিয়ে সতর্ক করেছিলেন। তিনি বলেছিলেন যে সামরিক পথে কোনোদিনই আফগানিস্তানে সাফল্য পাবে না আমেরিকা। তাঁর দাবি, আমেরিকার উচিত্‍ তালিবানের সঙ্গে রাজনৈতিক সমঝোতা তৈরি করা।

দিনের পর দিন তালিবানকে পাকিস্তান সমর্থন জুগিয়ে এসেছে বলে সম্প্রতি মন্তব্য করেন মার্কিন বিদেশ সচিব অ্যান্টনি ব্লিনকেন। তাঁর দাবি, আফগানিস্তানের ভারতে ভূমিকা কোনোদিনই ভালো চোখে দেখেনি পাকিস্তান। তাই তারা নানা ধরনের ক্ষতিকর কার্যকলাপ চালিয়ে গিয়েছে। শুধু ব্লিনকেনই নয়, আমেরিকার সাংসদ বিল কিটিং এই পরিপ্রেক্ষিতে মনে করিয়ে দেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের কথা। আসরাফ ঘানি দেশ ছাড়া হওয়ার পর ইমরান বলেছিলেন, 'দাসত্বের শৃ্ঙ্খল-মুক্ত হল আফগানিস্তান।' এ ছাড়া আফগানিস্তানের প্রাক্তন উপ রাষ্ট্রপতি আমরুল্লাহ সালেহও সম্প্রতি দাবি করেছেন, তালিবান চলছে পাক সংস্থা আইএসআই-এর অঙ্গুলিহেলনে। শোনা যাচ্ছে, আফগানিস্তানের বেশ কিছু গোপন নথি হাতিয়ে নিয়েছে পাকিস্তান। তিনটি বিমানে আফগানিস্তানের নানান গুরুত্বপূর্ণ নথি ইসলামাবাদে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। মনে করা হচ্ছে, পাকিস্তানের আইএসআই বাহিনী নিজেদের কাজেই ব্যবহার করবে ওই গোপন নথি।

আরও পড়ুন: Mystery Fever: শিশুদের উপর কি তবে করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের হানা? অবশেষে জানাল স্বাস্থ্য ভবন

Dailyhunt
Disclaimer: This story is auto-aggregated by a computer program and has not been created or edited by Dailyhunt. Publisher: TV9 Bangla
Top